Skip to main content

সর্বশ্রেষ্ঠ দোয়া আল কোরআনে বর্ণিত সর্বশ্রেষ্ঠ দোয়া | AL Quran a Bornito Sarboshesto Duya

 

সহীহ দুআ ও যিকর নবীজির দোয়া সমূহ সর্বশ্রেষ্ঠ দোয়া  আল কোরআনে বর্ণিত সর্বশ্রেষ্ঠ দোয়া AL Quran a Bornito Sarboshesto Duya


সর্বশ্রেষ্ঠ দোয়া অথবা সর্বশ্রেষ্ঠ দুয়ার মাজে এটা একটা যেটা এই দুনিয়া ও আখেরাতের ওবয়ের জন্য দুয়া ওবয়ের জন্য অনেক শক্তিশালী  একটা দুআয় অনেক ছোট কিন্তু তবে দুয়া ছোট হতেপারে কিন্তু এর গোনাগন অনেক বেশি যা আমরা বিভিন্ন সহীহ হাদিস ও আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম মেরে জীবন কাহানিতে পাই এই দুয়া আর ফজিলত ও গোনাগন  সহীহ হাদিস ও আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম মেরে জীবনী

আল্লাহর কাসে ক্ষমা চাওয়ার জন্য ও এই দুনিয়া ও আখিরাতের জন্য মঙ্গল কামনা করার জন্য এ র চেও ভালো ও সংক্ষিপ্ত দুয়া আর হতেপারেনা আর এই জন্য তো এটাকে আল কুরআনে বর্ণিত সর্বশেষ্ট দুয়া বলে বা বলাহয়

ইনশা আল্লাহ আমরা সবাই এই দুয়াটি মুখস্ত করবো আর ইনশা আল্লাহ আমল করার চেষ্টা করবো ইনশা আল্লাহ আমিন 

তো এখন কথা হলো যে আমল কখন করবো অনেকের মনে এই প্রশ্ন আসতে পারে আমল করার কোনো নিদ্দিষ্ট সময়নেই যখন খুশি আমল করতে পারবেন যেমন নামাযের শেষ বৈঠকে সালাম ফেরানোর আগে আমল করার খুব ভালো একটা সময় অথবা যেকোনো সময় আমল করতে পারবেন তারজন্য কোনো বাধা নেই তবে বাথরুমে কোনো দুয়া বা জিকির করাযাবেনা এখানে শুদু নিষেদাজ্ঞা রোয়েসে র কোথাও নেই


সর্বশ্রেষ্ঠ দোয়া  আল কোরআনে বর্ণিত সর্বশ্রেষ্ঠ দোয়া


رَبَّنَاۤ  اٰتِنَا فِی الدُّنۡیَا حَسَنَۃً  وَّ فِی الۡاٰخِرَۃِ حَسَنَۃً  وَّ قِنَا عَذَابَ النَّارِ

RABBANA ATINA FID-DUNIYA HASANA WA FIL AKHIRATI HASANA WA QINA AZAB AN NNAR

‘রাব্বানা আতিনা ফিদ্দুনিয়া হাসানা, ওয়াফিল আখিরাতি হাসানা, ওয়াকিনা আজাবান্নার।’


 আল কোরআনে বর্ণিত সর্বশ্রেষ্ঠ দোয়া

‘রাব্বানা আতিনা ফিদ্দুনিয়া হাসানা, ওয়াফিল আখিরাতি হাসানা, ওয়াকিনা আজাবান্নার।’


অর্থ :

হে আমার প্রভু! আমাকে দুনিয়াতে কল্যাণ দান কর, আখেরাতেও কল্যাণ দান কর এবং আমাকে জাহান্নাম থেকে বাঁচাও। -সূরা বাকারা : ২০১


পবিত্র কোরআনে বর্ণিত এ দুআকে সর্বশ্রেষ্ঠ দুআ বলা হয়। হজরত রাসূলুল্লাহ (সা.) এ দুআটি সবচেয়ে বেশি করতেন।


কি হয়-অথবা-ফজিলত

বিশিষ্ট তাবেয়ি হজরত কাতাদা (রহ.) সাহাবি হজরত আনাসকে (রা.) জিজ্ঞাসা করলেন, নবীজী (সা.) কোন দুআ বেশি করতেন? উত্তরে আনাস (রা.) উপরোক্ত দুআর কথা জানালেন। তাই আনাস (রা.) নিজেও যখন দুআ করতেন তখনই দুআতে উক্ত আয়াতকে প্রার্থনারূপে পাঠ করতেন। এমনকি কেউ তার কাছে দুআ চাইলে তিনি তাকে এ দুআ দিতেন। একদা তিনি মন্তব্য করেন, আল্লাহতায়ালা এ দুআতে দুনিয়া ও আখেরাতের সব কল্যাণ ও জাহান্নাম থেকে পরিত্রাণের প্রার্থনা একত্রিত করে দিয়েছেন। একবার রাসূলুল্লাহ (সা.) এক রোগী দেখতে গেলেন। তিনি দেখলেন, রোগী একেবারে হাড্ডিসার হয়ে গেছে। নবী (সা.) তাকে জিজ্ঞাসা করলেন, তুমি আল্লাহর কাছে কি কোনো প্রার্থনা করেছিলে? সে নিবেদন করল, হ্যাঁ। আমি আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করেছিলাম, হে আল্লাহ! আমার পরকালের শাস্তি আপনি আমাকে দুনিয়াতেই দিয়ে দিন। নবী (সা.) আশ্চর্যান্বিত হয়ে বললেন, ‘সুবহানাল্লাহ! আল্লাহর শাস্তি সহ্য করার ক্ষমতা কি কারো আছে? তুমি এখন থেকে এ দুআ করতে থাক, রাব্বানা আতিনা…।’ দেখা গেল, এ দুআর বরকতে আল্লাহতায়ালা তাকে আরোগ্য দান করলেন।


অন্য আরেক বর্ণনায় আছে, নবী (সা.) রুকনে ইয়ামানি (কাবা শরিফের দক্ষিণ-পশ্চিম কোণ) ও রুকনে আসওয়াদের (কাবা শরিফের দক্ষিণ কোণ) মাঝে উপরোক্ত দুআ করতেন। তাই হজ ও ওমরার তাওয়াফকালে এ দুআ পড়তে থাকা সুন্নত।

সূরা আল  বাকারা  আয়াত নং: ২০১ সম্পর্ণ আয়াত


   ﴾ وَ مِنۡہُمۡ مَّنۡ یَّقُوۡلُ رَبَّنَاۤ  اٰتِنَا فِی الدُّنۡیَا حَسَنَۃً  وَّ فِی الۡاٰخِرَۃِ حَسَنَۃً  وَّ قِنَا عَذَابَ النَّارِ ﴿۲۰۱ 

             

(Surah Al-Baqara  Ayat no 201 Complete verses ) And of them there are some who say:

Our Lord! Give us in this world that which is good and in the Hereafter that which is good, and save us from the torment of the Fire!

(সূরা আল  বাকারা  আয়াত নং: ২০১ সম্পর্ণ আয়াত )

ওয়া মিনহুম মাইঁ ইয়াকূলুরাব্বানাআ-তিনা-ফিদ্দুনইয়া-হাছানাতাওঁ ওয়া ফিল আ-খিরাতি হাছানাতাওঁ ওয়া কিনা-‘আযা-বান্না-র।

আর তাদের মধ্যে কেহ কেহ বলে - হে আমাদের রাব্ব! আমাদেরকে ইহকালে কল্যাণ দান করুন ও আখিরাতে কল্যাণ দান করুন এবং জাহান্নামের শাস্তি হতে আমাদেরকে রক্ষা করুন।

Comments

Popular posts from this blog

শীর্ষ 6 টি উপায় অনলাইন থেকে টাকা আয় করার সহজ ও সঠিক উপায় | Top 6 Way Online Theke Taka Income Korar

কিভাবে অনলাইন থেকে সঠিক উপায়ে ও সহজে টাকা ইনকাম করা যায় শীর্ষ 6 টি উপায় Kivabe Taka income Korbo  Kivabe Taka income Korbo  Best Way Online Theke Taka Income Korar  অনলাইন ইনকাম অনলাইন থেকে কিভাবে সহজে টাকা  ইনকাম করা যায় অথবা অনলাইনে কিভাবে টাকা  আয় করা যায় এ ধরনের প্রশ্নগুলো বেশির ভাগ করা হয়ে থাকে ইন্টারনেটে। আপনি যখন এখানে এসেছেন তাহলে অবশ্যই আপনি নতুন এবং আপনি অনলাইন থেকে কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায় সেটা জানতে চাচ্ছেন। অথবা শিখতে চাচ্ছেন তো আমার সর্বোচ্চ চেষ্টা থাকবে আপনাকে সঠিকভাবে গাইড করা। আপনি যদি মনে করে থাকেন যে আপনাকে কোন মোবাইলের অ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড করার লিংক দেওয়া হবে। অথবা ওয়েবসাইটের লিংক দেওয়া হবে কাজ করার জন্য এবং সেটা থেকে আপনি 500 টাকা অথবা 1000 টাকা দৈনিক ইনকাম করবেন বিকাশে পেমেন্ট নেবেন তাহলে আপনি ভুল জায়গায়  চলে এসেছেন।  আমি আন্তরিকভাবে দুঃখিত যে আপনাকে হতাশ করা ছাড়া আমার আর কিছুই করার নেই  তবে যদি আপনি সমস্ত আর্টিকেলটা পড়েন তাহলে আশাকরি আপনার যত ভুল ধারণা আছে সেই সবগুলো আর থাকবে না। যদি মোবাইলের সফটওয়্যার ডাউনলোড করে সফটওয়্যার  দিয়ে অথবা ওয়েব স

ব্লগ তৈরি করে টাকা ইনকাম করার উপায় | Blog Theke Kivabe Taka Income Korbo

ব্লগ থেকে কিভাবে আয় করা যায় কিভাবে ব্লগিং করতে হয় সম্পূর্ণ গাইড লাইন Blog Theke Kivabe Taka Income Korbo ব্লগ তৈরি করে আয়  ব্লগার থেকে টাকা আয় করার উপায় আপনি যদি ব্লগ থেকে আ য়  করতে চান এবং ব্লগিং কিভাবে করে সেইটা সম্পূর্ণ ভাবে সবকিছু জানতে চান তাহলে অবশ্যই সম্পূর্ন পোস্ট পড়ুন আপনার সব ধরনের প্রশ্নের উত্তর এখানে পেয়ে যাবেন ব্লগিং কিভাবে করতে হয় ব্লগিং করে কিভাবে আয় করা যায় সম্পূর্ণ। ব্লগ থেকে আ য়  করতে যে বিষয়গুলো নিয়ে এখানে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করা হয়েছে সেই বিষয়গুলো প্রথমে একবার দেখে নিতে পারেন তাহলে আপনার বুঝতে একটু অসুবিধা হয়ে যাবে এবং আপনি যে বিষয়ে জানতে চাচ্ছেন সে বিষয়টা এখানে খুঁজে পাবে সে ক্ষেত্রে আপনার সম্পূর্ণ আর্টিকেল পড়তে হবে না। ব্লগ কি এবং ব্লগিং কেন করে ব্লগ তৈরি করে আয় অথবা টাকা ইনকাম করা যায় কিনা ব্লগ কেন বলা হয় এবং  ব্লগিং কেন বলা হয়  ব্লগিং করতে হলে যে বিষয়টির সম্বন্ধে আপনার জানতে হবে ব্লগ শুরু করতে হলে সর্বপ্রথম কি কি লাগবে ব্লগিং করতে হলে যে বিষয়গুলো আপনাকে মেনে চলতে হবে ব্লগিং করতে হলে যে বিষয়গুলো সম্বন্ধে আপনার ধারণা থাকতে হবে ব্লগিং কর

ফ্রিল্যান্সিং করে ইনকাম ফ্রিল্যান্সিং বাংলাদেশ | How To Earn by Freelancing in Bangladesh

 ফ্রিল্যান্সিং করে ইনকাম এবং ফ্রিল্যান্সিং করার সম্পূর্ণ গাইড লাইন বাংলাতে How To Make Money From  Freelancing  Anf How To Start Freelancing in Bangladesh ফ্রিল্যান্সিং করে ইনকাম ফ্রিল্যান্সিং এমন একটা শব্দ যে বর্তমানে সবার মুখে মুখে সোশ্যাল মিডিয়াতে এমন কোন প্ল্যাটফর্ম পাবেন না যেখানে ফ্রিল্যান্সিং থেকে টাকা ইনকাম করার বিষয়ে কথা হয় না। ফ্রিল্যান্সিং করে কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায় সে বিষয়টা নিয়ে মোটামুটি সবারই মনে কৌতূহল জাগে সবাই চায় যে ফ্রিল্যান্সিং করে টাকা ইনকাম করতে। সবাই শুনে যে বর্তমানে ফ্রিল্যান্সিং করে মানুষ হাজার হাজার ডলার মাসে ইনকাম করে এবং সেই ক্ষেত্রে সবারই তো ইচ্ছা হয় যে আমিও ফ্রিল্যান্সিং  করে টাকা পয়সা ইনকাম করি সেজন্য সবাই চায় যে আমিও ফ্রিল্যান্সিং করে হাজার হাজার ডলার মাসে ইনকাম করতে পারব বা করব। প্রথমত এরকম চিন্তা ভাবনায় সবাই করে থাকে আর সেটার কারণ হলো সবাই মনে করে ফ্রিল্যান্সিং মনে হয় একেবারে সোজা শুধু ইন্টারনেটে বসলেই টাকা ইনকাম হবে আসলে মূল বিষয়টা কি ফ্রিল্যান্সিং করে কি সবাই টাকা ইনকাম করতে পারবে যদিও সেটা সম্ভব হয় তাহলে কিভাবে হবে সে জন্য কি ক